November 14, 2018
  • সৌম্য-ইমরুলের জোড়া সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়েকে ধবলধোলাই
  • মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চীনের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান
  • পঞ্চগড়ে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৯
  • বাংলাদেশিদের ‘অনঅ্যারাইভাল’ ভিসা দেবে চীন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফার একটিও মানা হবে না: কাদের
  • গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে সবকিছু করবে ইসি
  • অভিযানের প্রস্তুতি সম্পন্ন, এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি
  • জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায় ২৯ অক্টোবর
  • প্রধানমন্ত্রী সৌদি আরব সফরে যাচ্ছেন আজ
  • ইসিকে গণসংহতি আন্দোলনের আইনি নোটিশ

আলোচনা-অনশন একসঙ্গে চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা শিক্ষকদের


বার্তা৭১ ডটকমঃ স্বীকৃতি পাওয়া সব বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করার দাবির বিষয়ে আন্দোলনরত শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা শুরু করেছেন। আমরণ অনশনের নবম দিনে মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (মাধ্যমিক-২) জাবেদ আহমেদের সঙ্গে আন্দোলনকারীদের একটি প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করে। তবে সেখানে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়া নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ রায় গণমাধ্যমকে বলেন, দাবি আদায়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনার পাশাপাশি আন্দোলনও চলবে। এবার দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন থামাবেন না।

এদিকে আন্দোলনকারীরা দাবি পূরণে রাষ্ট্রপতি বরাবর যে স্মারকলিপি দিয়েছিলেন, সে বিষয়ে বিধিগত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবকে লিখিতভাবে নির্দেশনা দিয়েছে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়।

এমপিওভুক্তির দাবিতে গত ২৫ জুন থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সড়কের উত্তর পাশে আমরণ অনশন করছেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। গতকাল বিকেল পর্যন্ত নতুন করে আরো ১১ শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের মধ্যে দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ নিয়ে গত ৯ দিনে ১৯৩ জন অসুস্থ হয়ে পড়লেন বলে আন্দোলনকারী শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের নেতারা জানিয়েছেন।

এর আগে গত ১০ জুন থেকে প্রেসক্লাবের সামনে লাগাতার অবস্থান করে আসছিলেন শিক্ষক-কর্মচারীরা। দাবির বিষয়ে রাষ্ট্রপতি, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার ও সাংসদদের কাছে স্মারকলিপি দেন তারা।

সর্বশেষ ২০১০ সালে ১ হাজার ৬২৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত (এমপিওভুক্ত হলে শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকার থেকে মূল বেতনসহ কিছু ভাতা পান) করা হয়েছিল। বর্তমানে স্বীকৃতি পাওয়া নন-এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আছে ৫ হাজার ২৪২টি।

বিভাগ - : শিক্ষাঙ্গন

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন