November 22, 2017
  • ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব স্বীকৃতি: নাগরিক সমাবেশ শনিবার
  • ২০১৮ সালে সরকারি ছুটি ২২ দিন
  • শাবি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষ
  • শ্যাননের সঙ্গে খালেদা জিয়ার ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে : মির্জা আলমগীর
  • শিল্প ও বাণিজ্য মেলা নামে র‌্যাফেল ড্র নামক জুয়ার রমরমা ব্যবসা
  • প্রধান বিচারপতির ভূমিকা দুঃখজনক : আমু
  • ঈদুল আজহা ২ সেপ্টেম্বর
  • রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ইসির সংলাপ শুরু বৃহস্পতিবার
  • বিষধর সাপ নিয়ে খেলছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের
  • ‘নির্বাহী ও বিচার বিভাগে দূরত্ব সৃষ্টির চক্রান্তে বিএন‌পি’

‘প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ করা উচিত ছিল’

pm
বার্তা৭১ ডটকমঃ সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দেয়া রায়ে সংসদ নিয়ে কথা বলার আগে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ করা উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবসের আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

এসময় তিনি সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দেয়া রায় ও পর্যবেক্ষণ নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতির মন্তব্যের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সব কিছু সহ্য করা যায়, কিন্তু পাকিস্তানের সঙ্গে তুলনা সহ্য করা যায় না। আমাকে হুমকি দিয়ে কোন লাভ নেই। আমি একমাত্র আল্লাহর কাছে সেজদা দেই, আর অন্য কারো কাছে মাথানত করি না। সবাই মনে রাখবেন, জনগণের আদালতই সবচেয়ে বড় আদালত, জনগণের শক্তিই বড় শক্তি।

পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশকে তুলনা করায় জনতার আদালতে তার বিচার চেয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, কেন বাংলাদেশকে পাকিস্তান এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তুলনা করা হবে? যে পাকিস্তানকে আমরা যুদ্ধ করে পরাজিত করেছি, লাখো শহীদের মহান আত্মত্যাগে পেয়েছি স্বাধীনতা। যে পাকিস্তান এখন ব্যর্থ রাষ্ট্র- সেই দেশটিকে নিয়ে তুলনা করায় এর বিচারের ভার দেশের জনগণের ওপর দিলাম।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সংসদ নিয়ে কথা বলার আগে প্রধান বিচারপতিকে তার পদ থেকে সরে যাওয়া উচিত ছিল।

তিনি বলেন, আমার বাবা এ দেশ স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন। আমরা এর ফল ভোগ করছি। স্বাধীনতা ভালো, কিন্তু এটি বালকের জন্য নয়।

আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এই আলোচনা সভায় আলোচনা সভায় দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেমন, জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিভাগ - : জাতীয়

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন