June 24, 2018
  • পরীমনিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে
  • কিমের সঙ্গে চুক্তির পরও নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াল ট্রাম্প
  • সরকারের প্রতি ভোটারদের আস্থা নেই, প্রধানমন্ত্রী ঠিকই উপলব্ধি করেছেন: রিজভী আহমেদ
  • গাজীপুরের নির্বাচন হবে এসিড টেস্ট: মওদুদ
  • ইথিওপিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশে গ্রেনেড হামলা, ব্যাপক হতাহত
  • ছাড় পাচ্ছে না মেসি পূত্র চিরো!
  • ‘অক্টোবরের শেষ দিকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল’
  • ভারতীয় নাগরিক রোখসানার স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ
  • ব্যাংক পরিচালকেরা চাপে
  • ইসরাইলি গুলিতে রক্তে ভেসে যায় প্রেস লেখা নীল জ্যাকেট

রুয়েট ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ৮


বার্তা৭১ ডটকমঃ আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকদের মধ্যে আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তিনটি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সংঘর্ষে আটজন আহত হয়েছেন।

রুয়েটের শহীদ আবদুল হামিদ হলে এ সংঘর্ষের ঘটনায় আহত পাঁচজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রামেক হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ এসআই শফিকুল ইসলাম জানান, রুয়েটে সংঘর্ষের ঘটনায় পাঁচজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর তিনজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান রাজিব জানান, পুলিশের কাছ থেকে খবর পেয়ে রাত ১২টার দিকে মহানগর ছাত্রলীগের বর্তমান ও সাবেক নেতৃবৃন্দ রুয়েট ক্যাম্পাসে যান। পরে তারা পুলিশের সহযোগিতায় পরিস্থিতি শান্ত করে হামিদ হল থেকে আহত আটক ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। আহত সবাই রুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাহফুজুর রহমান তপুর সমর্থক। তবে কি নিয়ে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত তা নিশ্চিত করে জানাতে পারেননি এ ছাত্রলীগ নেতা।

মতিহার থানার ওসি শাহাদত হোসেন খান বলেন, রুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রহমান নিবির ও সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাহফুজুর রহমান তপুর সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সভাপতির সমর্থক এক সিনিয়র ছাত্রলীগ নেতাকে সম্মান না জানানোকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের সূত্রপাত।

ওসি শাহাদত বলেন, রাত সোয়া ১১টার দিকে দু’পক্ষের মধ্যে প্রথম কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয়। এরপর সভাপতির সমর্থকরা জড়ো হয়ে হলের গেট বন্ধ করে দিয়ে সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকদের পিটিয়ে জখম করে। রাত সোয়া ১২টার দিকে পুলিশ ও মহানগর ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

এর আগে গত ২৩ জানুয়ারি দিবাগত রাতে শহীদ আবদুল হামিদ হলে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১১ জন আহত হন। নেশা করে হলে মাতলামি করাকে কেন্দ্র করে ওই সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়েছিল বলে জানা যায়।

সংঘর্ষের পর রুয়েট ছাত্রলীগ কমিটির কার্যক্রম স্থগিত
এদিকে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বিবদমান দুইগ্রুপে সংঘর্ষের পর রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) শাখা ছাত্রলীগের কমিটির সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। রাতেই ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের জরুরী সিদ্ধান্ত মোতাবেক সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক আদেশে রুয়েট ছাত্রলীগ কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করা হয় বলে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি রকি কুমার ঘোষ জানান।

তিনি আরও জানান, রুয়েট ছাত্রলীগের কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করা ছাড়াও সভাপতি নাঈম রহমান নিবির ও সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাহফুজুর রহমান তপুকে শোকজ করা হয়েছে। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে কেন সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া যাবে না? তা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তাদের জানাতে বলা হয়েছে।

বিভাগ - : আঞ্চলিক সংবাদ, শিক্ষাঙ্গন

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন